হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি এড়াতে যা করবেন

হার্টের সমস্যা কেবল বেশি বয়সীদের হয় তা কিন্তু নয়। এখন কম বয়সীদের মধ্যেও এ রোগ হচ্ছে। কিন্তু চিকিৎসকরা এর কারণ হিসেবে দায়ী করছেন অনিয়মিত জীবন যাপনকেই। লাইফস্টাইলে কিছু পরিবর্তন আনলেই হার্ট অনেকটা সুস্থ থাকবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা পরিসংখ্যানের হিসাব অনুযায়ী, ভারতের মতো তৃতীয় বিশ্বের দেশে স্ট্রোক কিন্তু মৃত্যুর দ্বিতীয় বৃহত্তম কারণ।

দেখে নেওয়া যাক কী পরিবর্তন আনতে হবে দৈনন্দিন জীবনে?

রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক রাখা দরকার

শরীরে প্রয়োজনের অতিরিক্ত শর্করা থাকলে তা কখনওই ভালো নয়। ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমলে হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা এমনিই কমে যায়।

নিয়মিত শরীরচর্চা করতে হবে

ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন। নিয়মিত যোগ ব্যায়াম করলে হার্ট সুস্থ থাকে। নিয়মিত আধা ঘণ্টা হাঁটতে হবে। সপ্তাহে অন্তত ৫ দিন শরীরচর্চা করতে হবে।

মদ্যপান এবং ধূমপান থেকে দূরে থাকুন

ধূমপান ও মদ্যপান একেবারে ছেড়ে দিতে হবে। 

স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে হবে

আপনার প্রতিদিনের খাবারে প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, আর ফ্যাট-এর পরিমানে যেন সমতা থাকে। সতেজ ফল, শাক সবজি খান। ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে এমন মাছ রাখুন প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় রাখুন। লবণ, মিষ্টি, রেড মিট খাওয়া কমান।

পর্যাপ্ত ঘুম দরকার

দিনে ৭ ঘণ্টা ঘুম সুস্থ থাকার জন্য খুব জরুরি। মানসিক চাপ থেকে দূরে থাকাও খুব দরকার। তার জন্য নিয়মিত যোগা করাও দরকার। নিয়মিত শরীরচর্চার মধ্যে থাকলে রাতের ঘুম ভাল হয়। রক্ত কণিকা সুস্থ থাকে। সূত্র: জি নিউজ 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *