নবজাতকের প্রথম ঢাল যে ব্যাকটেরিয়া

অনুজীব বিজ্ঞানী স্টেফানি গানালের মতে, জন্মের সময়ই শিশু প্রথমবার ব্যাকটেরিয়ার সংস্পর্শে আসে। গর্ভনালীর ভেতরেই মায়ের অন্ত্রের ব্যাকটেরিয়া শিশুর ভেতর ঢোকে। এই ব্যাকটেরিয়া তার জীবনের প্রথম ঢাল। এগুলো শিশুকে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরিতে সাহায্য করে।

‌‘আমরা যখন জন্মাই, তখন আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা পুরোপুরি তৈরি থাকে না। আস্তে আস্তে শরীর রোগ, অর্থাৎ ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়াকে চিনতে শুরু করে এবং তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে শেখে। এ ক্ষেত্রে অন্ত্রের অনুজীবগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এবং পরবর্তীতে ক্ষতিকারণ অনুজীবগুলোর বিরুদ্ধে লড়তে সাহায্য করে’,- বলছিলেন অণুজীব বিজ্ঞানী স্টেফানি গানাল।

মায়ের অন্ত্রের ব্যাকটেরিয়া শিশুর রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতার কেমন প্রভাব ফেলে এ নিয়ে গবেষণা করেছেন তিনি। এক গবেষণা তিনি দেখিয়েছেন, গর্ভাবস্থায় মায়েরা কী খাচ্ছেন, তা শিশুর জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, মায়ের অন্ত্রের ব্যাকটেরিয়া গর্ভাবস্থাতেই শিশুর ওপর প্রভাব ফেলছে।

 

এই গবেষক দেখিয়েছেন, কী করে মায়ের ব্যাকটেরিয়া পরিবাহকগুলো গর্ভনালির মাধ্যমে শিশুর ভেতরে যায় এবং তা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে প্রভাবিত করে। 

তিনি বলেন, মাকে খুব খেয়াল করে খাবার খেতে হবে। যেমন প্রচুর ভিটামিন আছে, ভারসাম্যপূর্ণ এমন নানান ধরনের খাবার। মানে চিন্তা করতে হবে, আপনার কি চকলেট বা ক্যান্ডি খাওয়ার আদৌ দরকার আছে? না মাঝে মাঝে না খেলেও হয়। কী খাচ্ছি, কতটা খাচ্ছি, একটু খেয়াল করতে পারলে ভালো। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *